প্রথম সতর্ক করা সেই চিকিৎসক নিজেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

0
34

চীনের করোনাভাইরাস সম্পর্কে প্রথম যে চিকিৎসক সতর্ক করেছিলেন, এবার তিনি নিজেই আক্রান্ত হয়েছেন। সবার আগে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসটির অস্তিত্ব টের পেয়েছিলেন ও ভয়াবহতা বুঝতে পেরেছিলেন চিকিৎসক লি ওয়েনলিয়াং।

শনিবার ডা. লির শরীরে এই সংক্রমণ ধরা পড়লে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভর্তি রয়েছেন তিনি।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের খবরে জানা গেছে, উইচ্যাটে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর তার মেডিকেল স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থীদের গ্রুপে ডা. লি জানিয়েছিলেন যে, স্থানীয় একটি সামুদ্রিক খাবার বিক্রির বাজারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সাতজন একটি বিশেষ ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর তিনি পেয়েছেন।

‘এটি অনেকটা সার্সের মতো। তিনি সেখানে ব্যাখ্যা করে নিচের বন্ধুদের সতর্ক করে বলেন যে, তার গবেষণা অনুযায়ী এটি আসলে করোনাভাইরাস। এ জন্য বন্ধুদের সবাইকে সতর্ক থাকতেও বলেন তিনি। এগুলো সবই ছিল অনানুষ্ঠানিক কথাবার্তা।’

কিন্তু তার সেই চ্যাট গ্রুপের আলাপের স্ক্রিনশট সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে উহান পুলিশের হাতে আটক হন ৩৪ বছর বয়সী এ শিক্ষক।

সেই মুহূর্তে এ রোগটি সম্পর্কে তথ্য ছড়াতে চায়নি কর্তৃপক্ষ। কিন্তু দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। রুপ নেই আধুনিক বিশ্বের নতুন মহামারীতে।

এদিকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তাকে স্বাগত জানানোর কথা জানিয়েছে চীন। যদিও একদিন আগে ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে ত্রাস সৃষ্টি করার অভিযোগ করেছে বেইজিং।

সোমবার দিনশেষে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২৫। আর আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২০ হাজার।

এর আগের দিনের চেয়ে মৃতের সংখ্যা ৬৫ জন বেড়ে গেছে। দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে। তবে এসব মৃত্যু মধ্য হুবেইপ্রদেশেই ঘটেছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, গত বছরের শেষ দিন চীনের হুবেইপ্রদেশের উহান শহরে প্রথম এ ভাইরাস সংক্রমণের বিষয়টি ধরা পড়ার পর থেকে একদিনে এত বেশি মৃত্যু ও নতুন রোগীর তথ্য আর আসেনি।

চীনের বাইরে অন্তত ২৫ দেশ ও অঞ্চলে অন্তত ১৫০ মানুষের দেহে এই করোনাভাইরাসে সংক্রমণ ধরা পড়ছে।

এর আগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সহায়তা না করে যুক্তরাষ্ট্র আতঙ্ক ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে চীন। এ ভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্র শুক্রবার জনস্বাস্থ্যের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।

গত দুই সপ্তাহের মধ্যে যারা চীন সফর করেছে, তাদের যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকতে দেবে না বলেও ঘোষণা দিয়েছে। তার পরই চীন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করল।

সোমবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইং বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এসব পদক্ষেপের ফলে বরং আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়বে।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এই সংকটে সাহায্যের প্রস্তাব দেয়ার পরিবর্তে বরং আতঙ্ক ছড়াচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here