নানার জোরপূর্বক ধর্ষণে অষ্টম শ্রেণিতে পড়া নাতনী অন্তঃসত্ত্বা

0
1890

শেরপুরের শ্রীবরদীতে বদর আলী নামের ৬০ বছরের এক বৃদ্ধ নানার ধর্ষণে অষ্টম শ্রেণির এক মাদরাসা ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে। অন্তঃসত্তা ওই ছাত্রী উপজেলার কাকিলাকুড়া বালিকা দাখিল মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী এবং উপজেলার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের পূর্ব মলামারী গ্রামের বাসিন্দা। অভিযুক্ত ধর্ষক প্রতিবেশি সম্পর্কে নানা হন।

এ নিয়ে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে বদর আলীকে (৬০) প্রধান আসামী করে মঙ্গলবার বিকালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে শ্রীবরদী থানা একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসামী বদর আলীকে গ্রেফতার করে বুধবার (২২ জানুয়ারী) শেরপুর আদালতে সোপর্দ করেছে।

মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার মাদরাসা ছাত্রী ও অভিযুক্ত বদর আলী একই বাড়ির পাশাপাশি ঘরে বাস করে আসছিল। গত কয়েক মাস আগে বদর আলী ওই ছাত্রীকে তেলপড়া দেওয়ার নাম করে গোয়াল ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শণ করে। গত ১৩ জানুয়ারী ভিকটিম অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তার মা তাকে চিকিৎসার জন্য পাশ্ববর্তী উপজেলা বকশীগঞ্জে নিয়ে যায়। ডাক্তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানায় ওই ছাত্রী গর্ভবতী হয়ে পড়েছে। পরে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে বদর আলী আপোষ-মীমাংসার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারী) বিকালে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে শ্রীবরদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার সাংবাদিকদের বলেন, অভিযুক্ত বদর আলীকে গ্রেফতার করে বুধবার দুপুরে শেরপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিম অন্ত:সত্ত্বা কিনা তা নির্ণয়ের জন্য তাকে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here